লোকটি ৩০ নারীর দেহে এইচআইভি জীবাণু ছড়িয়েছেন

October 28, 2017

30_women20171028092034ইচ্ছাকৃতভাবে ৩০ নারীর শরীরে ঘাতকব্যধি এইচআইভি এইডসের জীবাণু ছড়িয়েছেন ইতালির এক ব্যক্তি।অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় শুক্রবার ইতালির একটি আদালত লোকটিকে ২৮ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন।

অভিযোগে বলা হয়েছে, ভ্যালেন্তিনো তালুতো নামের এই লোকের এইচআইভি ধরা পড়ে ২০০৬ সালে। এরপর প্রায় ৫৩ জন নারীর সঙ্গে তার শারীরিক সম্পর্ক হয়েছে। এদের মধ্যে এক কিশোরীও রয়েছে। প্রথম যখন তারা সান্নিধ্যে আসে, তখন মেয়েটির বয়স ছিল ১৪ বছর।

পেশায় অ্যাকাউন্ট্যান্ট তালুতো মরণব্যধি এইচআইভিতে আক্রান্ত হওয়ার পর ছদ্মনামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ডেটিং সাইটগুলোতে নারীদের সঙ্গে হরহামেশা সম্পর্ক তৈরি করতে থাকেন। পরিকল্পনামতো ফাঁদে ফেলে তাদের সঙ্গে অরক্ষিত দৈহিক সম্পর্কে জড়ান এবং তাদেরকে এইচআইভিতে সংক্রমিত করেন।

এইচআইভিতে সংক্রমিত করে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেওয়ায় ৩৩ বছর বয়সি তালুতোকে ২৮ বছরের জেল দিয়েছেন ইতালির একজন বিচারক। তবে তার আইনজীবীরা দাবি করেন, ইচ্ছাকৃত নয়, বরং হঠাৎ হঠাৎ করেই ওই সম্পর্কগুলো তৈরি হয়। এ যুক্তি প্রত্যাখ্যান করেছেন বিচারক।

তবে সাক্ষ্য-প্রমাণে উঠে এসেছে, তার সঙ্গে শয্যাসঙ্গী হওয়া নারীরা যখন তাকে সুরক্ষা ব্যবস্থা নিতে বলেছেন তখন তালুতো তাদের বুঝিয়েছেন, এতে তার এলার্জি সমস্যা হয় অথবা বলেছেন, সম্প্রতি তিনি এইচআইভি পরীক্ষা করিয়েছেন, কোনো সমস্যা নেই।

যেসব নারী আইচআইভিতে সংক্রমিত হওয়ার পর তালুতোর দিকে অভিযোগের আঙুল উঠিয়েছেন, তিনি তাদের বলেছেন, তার শরীরে এইচআইভি নেই। প্রত্যাখ্যান করলেও যে ভয়ংকর ঘটনা ঘটেছে, তা হলো- এক নারী তালুতোর কাছ থেকে সংক্রমিত হওয়ার পর ওই নারীর মাধ্যমে আরো চার পুরুষ ও এক শিশু এইচআইভি পজিটিভ হয়েছে।

তথ্যসূত্র :রাইজিংবিডি