স্কুল না বাসগৃহ প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষককে কারণ দর্শানো নোটিশ

June 4, 2018

নাটোর প্রতিনিধি
নাটোরের বাগাতিপাড়ার বড়পুকুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আনোয়ারা পারভিন বিদ্যালয়ের কক্ষ বাসগৃহের মতো ব্যবহার করায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক,সহকারী শিক্ষক ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটিকে কারণ দর্শানো নোটিশ দিয়েছে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার। আলাদা পত্রে আগামী তিন দিনের মধ্যে কারন দর্শানো নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাসরিন বানু স্বাক্ষরিত নোটিশে বলা হয়েছে, বড়পুকুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আনোয়ারা পারভিন দীর্ঘ দিন ধরে কর্তৃপক্ষের বিনা অনুমতিতে বিদ্যালয়ের শ্রেণী কক্ষে ফার্নিচার, বিদ্যালয়ের বিদ্যুৎ খরচ করে ধান শুকানো সহ যাবতীয় কাজ করেছেন। এজন্য বিদ্যালয়ের শিক্ষার পরিবেশ বিঘিœত হয়েছে। বিদ্যালয়ের দায়িত্ব-কর্তব্য অবহেলা করার জন্য আপনার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে না কেন, তা পত্র প্রাপ্তির তিন কার্যদিবসের মধ্যে দাখিল করার জন্য নির্দেশ দেয়া হল।
অপরদিকে, ৩জুন উপজেলা শিক্ষা অফিসার ফাইজুল ইসলাম সাক্ষরিত একটি পত্রে বড়পুকুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলাম কিবরিয়া এবং সহকারী শিক্ষক আনোয়ারা পারভিনকে কৈফিয়ত তলব করে চিঠি দিয়েছেন। চিঠিতে বলা হয়, বিভিন্ন গণমাধ্যমে বিদ্যালয়ের শ্রেণী কক্ষ ব্যবহার করে ব্যক্তিগত কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। যা চাকরি বিধিবালা পরিপন্থি। এজন্য আপনাদের দু’জনের বিরুদ্ধে কেন বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবেনা জানতে আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে নি¤œস্বাক্ষরকারীর নিকট জবাব দিতে বলা হয়।
উল্লেখ্য, বাগাতিপাড়ার বড়পুকুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আনোয়ারা পারভিন বিদ্যালয়ের কক্ষ বাসগৃহের মতো ব্যবহার করেছেন। বিদ্যালয়ের মোট চারটি কক্ষের মধ্যে দুটি কক্ষে ধান শুকানোর কাজ এবং অপর দুটি কক্ষের একটিতে রাখা হয়েছে খাট, সোফা সেট, ওয়ার ড্রপ সহ কাঠের আরো আসবাব পত্র। আরেকটি কক্ষে রাখা হয়েছে পাইপ, রড, সিমেন্টসহ প্রয়োজনীয় আরো অনেক কিছু। এনিয়ে সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত। প্রকাশিত সংবাদের সূত্র ধরে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এবং সহকারী শিক্ষককে কারণ দর্শানো নোটিশ দেয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার।